জমি পরিমাপের নিয়ম ২০২৩ । জমির পরিমাপ হিসাব

ভূমি পরিমাপের জন্য Standard Measurement যা “সরকারি মাপ” বলে পরিচিত। ভূমি সংক্রান্ত যাবতীয় দলিলাদি লিখন, সরকারি হিসাব ও অফিসের কাজ ইত্যাদি যাবতীয় বিষয়ে জমির পরিমাপ হলো:

১. ডেসিমেল বা শতাংশ বা শতক
২. কাঠা
৩. বিঘা এবং
৪. একর

উক্ত পরিমাপের জন্য ব্যবহার করা হয়ঃ
ইঞ্চি, ফুট ও গজ
১২” ইঞ্চি = ১ ফুট
৩ ফুট= ১ গজ

আজকে আমরা ভূমি বা জমি পরিমাপের পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করবো। এক নজরে বিঘা কাঠা, একর, শতক সূত্র ২০২২

আলোচ্য সূচীঃ

  1. জমির পরিমাপ পদ্ধতি
  2. জমির পরিমাপ
  3. জমি পরিমাপের সূত্র
  4. জমির সীমানা নির্ধারণ

 জমির পরিমাপ পদ্ধতি

মেট্রিক পদ্ধতি
দৈর্ঘ্য পরিমাপের অন্যতম মাধ্যম মেট্রিক পদ্ধতির একক হল- মিটার।

সহস্র – কিলোমিটার
শতক – হেক্টোমিটার
দশক – ডেকামিটার
একক – মিটার
দশমাংশ – ডেসিমিটার
শতাংশ – সেন্টিমিটার
সহস্রাংশ – মিলিমিটার

ব্রিটিশ পদ্ধতি বা ইম্পেরিয়েল সিস্টেম
দৈর্ঘ্য পরিমাপের ব্রিটিশ বা ইম্পেরিয়েল সিস্টেম এর একক হল- ফুট।

দেশীয় প্রচলিত মাপ-ঝোঁক বা আঞ্চলিক প্রচলিত পরিমাপ
সরকারি ভাবে ভূমির পরিমাপ একর বা শতক পদ্ধতিতে করা হয় এবং একর শতকের এই মাপ সমগ্র দেশে অভিন্ন। কিন্তু অঞ্চল ভেদে বিভিন্ন প্রকারের মাপ ঝোঁক প্রচলন আছে। শুধু তাই নয়, এক অঞ্চলের সাথে অন্য অঞ্চলের পরিমাপের এককের নামের সাদৃশ্য থাকলেও আয়তনের ভিন্নতা রয়েছে। সাধারণত এগুলো হলো কানি-গন্ডা বা বিঘা-কাঠা নামে পরিচিত। ১ একর জমি কত শতক । ভূমি পরিমাপ ২০২৩

ভূমি বা জমির পরিমাপ

একর শতকে ভূমির পরিমাপ : ডেসিমেল বা শতাংশ বা শতক:
১ শতাংশ = ৪৩৫.৬০ বর্গফুট
১ শতাংশ =১০০০ বর্গ লিঙ্ক
১ শতাংশ = ৪৮.৪০ বর্গগজ
৫ শতাংশ = ৩ কাঠা = ২১৭৮ বর্গফুট
১০ শতাংশ = ৬ কাঠা = ৪৩৫৬ বর্গফুট
১০০ শতাংশ = ১ একর =৪৩৫৬০ বর্গফুট

কাঠা পরিমাপ
১ কাঠা = ৭২০ বর্গফুট/৭২১.৪৬ বর্গফুট
১ কাঠা = ৮০ বর্গগজ/৮০.১৬ বর্গগজ
১ কাঠা = ১.৬৫ শতাংশ
২০ কাঠা = ১ বিঘা
৬০.৫ কাঠা =১ একর

একরের পরিমাপ
১ একর = ১০০ শতক
১ একর = ৪৩,৫৬০ বর্গফুট
১ একর = ১,০০,০০০ বর্গ লিঙ্ক
১ একর = ৪,৮৪০ বর্গগজ
১ একর = ৬০.৫ কাঠা
১ একর = ৩ বিঘা ৮ ছটাক
১ একর = ১০ বর্গ চেইন = ১,০০,০০০ বর্গ লিঙ্ক
১ একর = ৪,০৪৭ বর্গমিটার
১ শতক = ১ গন্ডা বা ৪৩৫.৬০ বর্গফুট

বিঘা পরিমাপ
১ বিঘা = ১৪,৪০০ বর্গফুট /১৪৫২০বর্গফুট
১ বিঘা = ৩৩,০০০ বর্গলিঙ্ক
১ বিঘা = ৩৩ শতাংশ
১ বিঘা = ১৬০০ বর্গগজ/১৬১৩ বর্গগজ
১ বিঘা = ২০ কাঠা
৩ বিঘা ৮ ছটাক = ১.০০ একর

লিঙ্ক পরিমাপ
১লিঙ্ক = ৭.৯ ইঞ্চি /৭.৯২ ইঞ্চি
১লিঙ্ক =০.৬৬ ফুট
১০০ লিঙ্ক = ৬৬ ফুট
১০০ লিঙ্ক = ১ গান্টার শিকল
১০০০ বর্গ লিঙ্ক = ১ শতক
১,০০,০০০ বর্গ লিঙ্ক = ১ একর

কানি একর শতকে ভূমির পরিমাপ
১ কানি = ২০ গন্ডা
১ গন্ডা = ২ শতক
১ শতক =২ কড়া
১ কড়া = ৩ কন্ট ১ কন্ট = ২০ তিল

ফুট এর হিসাব
১ কানি = ১৭২৮০ বর্গফুট
১ গন্ডা = ৮৬৪ বর্গফুট
১ শতক= ৪৩২ বর্গফুট
১ কড়া = ২১৬ বর্গফুট
১ কন্ট = ৭২ বর্গফুট
১ তিল= ৩.৬ বর্গফুট

বর্গগজ/বর্গফুট অনুযায়ী শতাংশ ও একরের পরিমাণ
৪৮৪০ বর্গগজ = ১ একর
৪৩৫৬০ বর্গফুট= ১ একর
১৬১৩ বর্গগজ= ১ বিঘা
১৪৫২০বর্গফুট = ১ বিঘা
৪৮.৪০ বর্গগজ = ০১ শতাংশ
৪৩৫.৬০ বর্গফুট= ০১ শতাংশ
৮০.১৬ বর্গগজ= ১ কাঠা
৭২১.৪৬ বর্গফুট = ১ কাঠা
৫.০১ বর্গগজ = ১ ছটাক
৪৫.০৯ বর্গফুট= ১ কাঠা
২০ বর্গহাত = ১ ছটাক
১৮ ইঞ্চি ফুট= ১ হাত (প্রামাণ সাই)

ভূমির পরিমাপ বা জমির পরিমাপের সূত্র
ভূমির পরিমাপ বা জমির মাপ-ঝোঁক মানেই এর ক্ষেত্রফল নির্ণয় করা। ভূমি বা জমির ক্ষেত্রফল নির্ণয়ে জ্যামিতির সাধারণ জ্ঞান জানা আবশ্যক। বিশেষ করে বিভিন্ন ভুজ (যেমন- ত্রিভুজ, চতুর্ভুজ, পঞ্চভুজ, ষড়ভুজ এবং বহুভুজ) এর ক্ষেত্রফল বের করার একাধিক সূত্র জানা দরকার। কারণ জমি সব সময় চতুর্ভুজ আকারের হবে এমন ধারণা করা ঠিক নয়।

ত্রিভুজের ক্ষেত্রফল = ½ (ভূমি×উচ্চতা)
চতুর্ভুজের ক্ষেত্রফল = দৈর্ঘ্য×প্রস্থ
বর্গক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = (বাহু)^2
রম্বসের ক্ষেত্রফল = ½×কর্ণদ্বয়ের গুণফল
সামন্তরিকের ক্ষেত্রফল = ভূমি×উচ্চতা
সুষম বহুভুজের ক্ষেত্রফল = ½ (অন্তস্থ বৃত্তের ব্যাসার্ধ × পরিসীমা)
ট্রাপিজিয়ামের ক্ষেত্রফল = ½ (সমান্তরাল বাহুদ্বয়ের দৈর্ঘ্যের যোগফল × সমান্তরাল রেখাদ্বয়ের লম্বদূরত্ব বা উচ্চতা)

জমির সীমানা নির্ধারণ

উপরোক্ত আলোচনা থেকে আমরা জমি পরিমাপ পদ্ধতি ও জমি পরিমাপের বিভিন্ন সূত্র সম্পর্কে জানতে পারলাম। আমরা উক্ত পদ্ধতিতে ও সূত্র ব্যবহার করে খুব সহজেই জমি পরিমাপ করে জমির সীমানা নির্ধারণ করতে পারি।

আমরা জমির পরিমাপ পদ্ধতি ও জমির পরিমাপ সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারলাম। আশা করি আজকের আলোচনা আপনাদের অনেক কাজে লাগবে।

স্কেল দিয়ে নকশায় প্লট বা দাগ পরিমাপ পদ্ধতি ২০২২

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *