অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২৩ । শিক্ষার্থী অবস্থায় অনলাইন থেকে আয় করার ৫ টি জনপ্রিয় মাধ্যম

পরিশ্রম ছাড়াই ইনকাম করার পথগুলো এড়িয়ে চলুন, শুধু অ্যাপ ব্যবহার করেই শর্টকাট আয়ের পথ দূরে ঠেলুন-অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২৩

বর্তমান যুগ এ পুরো বিশ্ব জুড়ে চলছে তথ্য প্রযুক্তির বিপ্লব। এই বিপ্লব এ আমাদের দেশের ফ্রিল্যান্সার রাও রাখছে গুরুত্বপূর্ণ অবদান ।বাংলাদেশে ফ্রিল্যান্সিং এর জনপ্রিয়তা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে ৬-৭ লক্ষ এর ও অধিক ফ্রিল্যান্সার ঘরে বসেই কাজ করছে Fiverr, Up-work, People per hours এর মতো সাইট গুলো তে ।কিন্তু এমন অনেকেও আছেন যারা সঠিক দিক-নির্দেশনার অভাবে প্রতারণার শিকার হচ্ছে। আজকে আমরা Student দের জন্য উপযুক্ত ৫ টি অনলাইন আর্নিং সাইট সম্পর্কে আলোচনা করা করবো।

ইউটিউব থাম্বেল ডিজাইন করে আয় করার নিয়ম ২০২৩

 বর্তমান এ ইউটিউব অন্যতম একটি জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং মাধ্যম। ইউটিউব এ বিভিন্ন বিষয়ে ভিডিও কন্টেন্ট তৈরীর মাধ্যমে যে টাকা ইনকাম করা যায় এটা অনেক এর ই জানা। কিন্তু ইউটিউব এ ব্যবহার করা থাম্বেল ডিজাইন করেও যে টাকা আয় করা যায় এই তথ্য টা অনেকেই জানে না। একটি আকর্ষণীয় থাম্বেল এর উপর ভিডিও এর ভিউ অনেক অংশে নির্ভর করে।তাই Fivver, UpWork, Freelance.com এর মতো অনলাইন মার্কেট প্লেস গুলো তে থাম্বেল ডিজাইন নিয়ে বাইরের দেশ এর বায়ার দের সাথে কাজ করতে পারবেন। এছাড়াও LinkedIn, Instagram এর মতো সামাজিক যোগাযোগ মধ্যম থেকে থাম্বেল ডিজাইন এর কাজ পাওয়া যায়। থাম্বেল ডিজাইন এর জন্য Adobe Photoshop এবং Adobe Illastator এর মতো ফটো এডিটিং সফটওয়্যার এর কাজ শিখে নিতে হবে। ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো ২০২২ । ফ্রিল্যান্সিং এর জন্য কি শিখবো?

ভিডিও এডিটিং করে অনলাইন হতে আয় করার নিয়ম ২০২৩

বর্তমানে ভিডিও কন্টেন্ট এর চাহিদা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এর সাথে সাথে বৃদ্ধি পাচ্ছে প্রোফেশনাল ভিডিও এডিটর এর চাহিদা। মূলত ইউটিউব ভিডিও এডিটিং এবং ভিডিও এ্যাড তৈরির কাজ এখন ঘরে বসেই খুব সহজে করা যাচ্ছে। সুতরাং এটা হতে পারে Student দের জন্য উপযুক্ত একটা Part-time টাকা আয় এর সেক্টর। এর জন্য দামী ক্যমেরা,এবং পিসির কোন দরকার নেই। Filmora ,Adobe pro এর মতো কিছু Software এ দক্ষতা অর্জন এর মাধ্যমে শুরু করা যেতে পারে ভিডিও এডিটিং নিজের ক্যরিয়ার । এখন মোবাইলেও ভিডিও এডিটিং করা যায়। আপনি দক্ষতা অর্জন করলে মোবাইল দিয়েও ভিডিও এডিটিং কাজ করা যায়। যদি আপনি ভাল এডিটর হয়ে উঠতে পারেন তবে বিভিন্ন ইউটিউবারের হয়ে কাজ করতে পারেন। অনলাইন মার্কেটপ্লেস আপওয়ার্ক, ফাইভার ইত্যাদি সাইটেও একাউন্ট খুলে কাজ করতে পারেন এবং এসব কাজ হতে ভাল আয়ও করা যায়।

অনলাইন এ গল্প লিখে আয় করা যায়

 একটা সময় ছিলো যখন জ্ঞান অর্জন এর কেন্দ্র বিন্দু ছিলো লাইব্রেরি। কারণ লাইব্রেরি ছিলো হাজার হাজার বই এর সহজ প্রাপ্তিস্থান। কিন্তু বর্তমান এ ইন্টারনেট এর যুগে লাইব্রেরি অনেকটাই ফিকে হয়ে গিয়েছে। অনলাইন এই পাওয়া যাচ্ছে গল্প, সাহিত্য, উপন্যাস এর নানারকমের বই। আপনিও অনলাইন ছোট গল্প, উপন্যাস লিখার মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। গল্প লিখে ইনকাম করার মতো কিছু ওয়েবসাইট হলো পকেট নোবেল, প্রতিলিপি, KuKu FM। এছাড়াও আরও বেশ কিছু অনলাইন ওয়েবসাইট রয়েছে। এছাড়া দেশী বা বিদেশী সাইট গুলোতে গল্প লিখে বিক্রি করা যায়। অনলাইনে খুজলে অনেক ওয়েবসাইট পাবেন যেখানে গল্প বা লেখা পাঠিয়ে অর্থ আয় করা যায়। এছাড়া অনলাইন পত্রিকা গুলোও ইদানিং লেখা বা গল্প কিনে নিচ্ছে। নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং । যে কারণে নারীদের ফ্রিল্যান্সিং করা উচিৎ

অনলাইনে ই-বুক বিক্রি করেও আয় করা যায়

অনলাইনে এ পড়া হয় এমন বই এর পিডিএফ কপি কেই ই-বুক বলা হয়। অপনি ছাএ অবস্থাতেই বিনা পুজিতে ই-বুক লিখে Amazon, kindle এর মতো অনলাইন সাইট গুলো তে তা বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন। এছাড়া আপনি নিজের অভিজ্ঞতা ও দক্ষতার আলোকে আপনি আপনার প্রকাশ করা বইও বিক্রি করতে পারেন। দেশী বিদেশী প্রকাশনার হয়ে আপনি অনলাইনে বই বিক্রি করতে পারেন। যদিও এখন ভিডিও কোর্স এবং বই সম্মিলিতভাবে বিক্রিও হচ্ছে। তবে ভাল ইংরেজী দক্ষতা থাকলে অ্যামাজন এবং কিন্ডল এর হয়ে বই বা ই বুক বিক্রি করলে ভাল কমিশন পাওয়া যায়।

ইউটিউব এ পণ্যের রিভিউ করে আয় করবেন যেভাবে

ইউটিউব এ পণ্যের রিভিউ করে আপনি দুই ভাবে টাকা আয় করতে পারবেন। প্রথম উপায় হলো ইউটিউব চ্যনেল মনিটাইজেশন থেকে এবং দ্বিতীয় উপায় হলো Amazon Affiliate মার্কেটিং এর মাধ্যমে। Affiliate মার্কেটিং এ সাথে যুক্ত হয়ে আপনি খুব সহজেই দীর্ঘ মেয়াদি টাকা আয়ের ব্যবস্থা করে নিতে পরেন। আপনার রিভিউ চ্যানেলটি যখন জনপ্রিয় হয়ে উঠবে, বিভিন্ন মোবাইলফোন কোম্পানি, অনলাইন অ্যাপস ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানগুলো আপনার ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দিতে চাইবে এবং ফিজিক্যাল ফোন বা ডিভাইজস পাঠিয়ে রিভিউ দিতে বলবে। এক্ষেত্রে পাঠানো ডিভাইজগুলো বিক্রি করা যায় এবং তাদের স্পন্সর থেকে অর্থও পাওয়া যায়। আপনি ইউটিউব ভিডিও গুলো দেখলে খেয়াল করবেন যে, তারা ভিডিও’র মাঝখানে কোন একটি ডিভাইজ বা অ্যাপস ব্যবহারে জন্য সুপারিশ করছে। এর মাধ্যমে কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানকে প্রমোট করে আয় করে থাকে।

সর্বোপরি উপরে উল্লেখ করা ৫ টি কাজের মধ্যে যেকোনো একটি ঠিক মতো করতে পারলে ছাএ অবস্থাতেই অনলাইন থেকে আপনি অতিসহজেই আয় করতে পারবেন। একটি ব্লগে সকল সাইট সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা সম্ভব নয়। আপনাদের আগ্রহ এবং প্রশ্ন অনুযায়ী আমরা অনলাইন থেকে আয় করার উপায় নিয়ে ধারাবাহিক আলোচনা করবো ।

বাংলা আর্টিকেল লেখার নিয়ম । Article Writer হতে চান?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *