কী-বোর্ডের শর্ট কমান্ড, যা আপনার কাজের গতি আরো বৃদ্ধি করবে

যুগের সাথে তাল মিলিয়ে এখন সব কাজে সব কিছুতে ব্যবহার করা হচ্ছে কম্পিউটার । কম্পিউটারকে যে যত বেশি ভালভাবে ব্যবহার করতে পারে সে তার কাজে তত বেশি দক্ষ বলেই সুনাম অর্জন করে।  কম্পিউটারের ভিতরের জিনিস গুলো বা হার্ডওয়ার বিষয়ে অত বেশি জ্ঞান না থাকলেও চলে কিন্তু যা দিয়ে কম্পিউটারকে আমরা ব্যবহার করে থাকি অর্থাৎ কিবোর্ড সম্পর্কে খুঁটিনাটি বিষয়ে দক্ষ হওয়া খুব জরুরি । আর কীবোর্ডে দক্ষতার বিষয় থেকে আসে কীবোর্ডের কোন কী কোন কাজে আসে সেসব জানা । চলুন দেখে নেয়ার যাক-

কি-বোর্ডের একদম উপরের দিকে F1 থেকে F12 পর্যন্ত পরপর কয়েকটি অপশন থাকে। কিন্তু অনেকেরই অজানা আসলে ওই কিগুলো কম্পিউটারের সামনে আপনাকে কতটা স্মার্ট করে তুলবে। দ্রুত কাজ সেরে ফেলার পক্ষে কতটা প্রয়োজনীয়।

 

F1: প্রায় সব প্রোগ্রামেরই হেল্প স্ক্রিন খুলে যায় এই “ কী ” টিপলে। অর্থাৎ, আপনি কোনো একটি প্রোগ্রাম সম্পর্কে সঠিকভাবে জানেন না। F1 টিপলেই সংশ্লিষ্ট প্রোগ্রামের বিস্তারিত তথ্য ও প্রশ্নোত্তর সহিত একটি স্ক্রিন খুলে যাবে আপনার জন্য।

F2:  অনেকেই মাউসের সাহায্য নেন কোনো একটি ফাইল বা ফোল্ডারের rename দিতে গেলে। কিন্তু শর্টকাটটা হলো F2,  মাউসের প্রয়োজনই পড়বে না।

F3 : কোন কিছুর সার্চ করার প্রয়োজন হলে টিপুন F3 । কোনো অ্যাপ্লিকেশনের (সেই মুহূর্তে যে অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহার করছেন) সার্চ ফিচার খুলে যায় এই  “ কী ”টিপলে।

F4 : উইন্ডো বন্ধ করার জন্য দারুণ শর্টকাট হল F4 কী । Alt+F4 টিপলে অ্যাক্টিভ উইন্ডো বন্ধ হয়ে যাবে খুব সহজে।

F5 : কোনো একটি পেজ রিফ্রেশ বা রিলোড করতে গেলে খামোখা মাউস নাড়াচড়ায় সময় নষ্ট না করে টিপে দিন F5।

F6 : ইন্টারনেট ব্রাউজারে কারসার সোজা চলে যায় অ্যাডড্রেস বার-এ F6 চাপলে।

F7 :  কোনো ভুল থাকলে ধরিয়ে দেবে F7 । মাইক্রোসফট ওয়ার্ড, এক্সেল, ডকুমেন্ট বা অন্য কোনো অ্যাপ্লিকেশনে কিছু লেখার পর বানান ও ব্যাকরণগত কারনে ভুল থাকলে ঠিক করে দেয়ার শর্টকাট এই “ কী” । এটি স্পেলিং ডায়ালগ ওপেন করার বহুল ব্যবহৃত শর্টকাট।

F8 : উইন্ডোজের বুট মেন্যুকে ব্যবহার করতে পারবেন F8 এর মাধ্যমে।

F9 : মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে কোনো ডকুমেন্ট রিফ্রেশ করতে চাইলে, মাইক্রোসফট আউটলুকে ইমেল পাঠানো এবং রিসিভের কাজ মিটে যায় এই শর্টকাট কী F9 এর সাহায্যে।

F10 : কোনো একটি অ্যাপ্লিকেশনে মেন্যু বার আনতে গেলে বেশির ভাগ মানুষ রাইট ক্লিক করে মাউসে। দরকারই পড়ে না যদি আপনি shift + F10 ব্যবহার করেন এবং দেখুন, রাইট ক্লিকের কাজ হয়ে যাচ্ছে কত সহজে।

F11 : ইন্টারনেট ব্রাউজারে ফুলস্ক্রিন মোডে ঢুকতে ও বের হতে কাজ করে F11 কী।

F12 : মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে ডকুমেন্ট Save as করতে গেলে মাউসের সাহায্য না নিয়ে এই ্কী -এ শর্টকাটে সেরে ফেলুন।

 

বেসিক কি-বোর্ড শর্টকাট

Ctrl+Z

কোনো প্রয়োজনীয় কাজ করার সময় ভুল করে সঠিক শব্দের স্থানে ভুল শব্দ লেখা অথবা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য মুছে ফেলার পর আবারও লিখতে গেলে সবারই বিরক্ত লাগে। ফিরে আসবে আগের লেখাগুলো, ক্লিক করুন  Ctrl+Z।

Ctrl+W

যখন একাধিক ফাইল, ব্রাউজার ট্যাব নিয়ে কাজ করছেন! ফলে চাপ বাড়ছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপে। এজন্য যখনই কোনো ফাইল, মেন্যু বা ব্রাউজারের কাজ শেষ হয়ে যাবে, Ctrl+W ক্লিক করুন, সেটি বন্ধ হয়ে যাবে

CTRL+A

কোনো ফাইল অথবা ডকুমেন্টের সব টেক্সট সিলেক্ট করার জন্য আমরা সাধারণত মাউসের পয়েন্টার ধরে ক্লিক ও ড্র্যাগ করে থাকি। কিন্তু CTRL+A শর্টকাটে দীর্ঘ সময়ের সিলেক্ট করার কাজটি করা হয়ে যাবে সেকেন্ডে।

 ALT+TAB

এক ট্যাব থেকে অন্য ট্যাবে যাওয়া, কাজ করার প্রয়োজন হয় বেশীরভাগ সময়ই। অধিক ট্যাব খোলা থাকলে ALT+TAB ব্যবহার করে সহজেই  আমরা পূর্ববর্তী ট্যাবে যেতে পারি। আর কয়েকটি ট্যাব খোলা থাকলে ALT+TAB বাটনে ক্লিক করার পর Alt বাটনটি চেপে ধরে রাখলে ট্যাবগুলোর প্রিভিউ থেকে নির্দিষ্ট ট্যাবে যাওয়া যাবে সহজেই।

CTRL+S

অনেক সময় উইন্ডোজ ভার্সনের ভিন্নতা থাকায় কোনো ডকুমেন্ট সেইভ করা নিয়ে বেশ দ্বিধায় পড়তে হয় আমাদের। তাছাড়া লোডশেডিং  অন্য কোনো কারণে হঠাৎ কাজে বিঘ্ন ঘটলেও প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট হারিয়ে ফেলার অসুবিধা এড়াতে  আমারা ব্যবহার করতে পারি CTRL+S শর্টকাট ।

Ctrl+Home এবং Ctrl+End

বড় আকারের ডকুমেন্টে কাজ করার সময় প্রথম পেজে যাওয়ার ক্ষেত্রে সময় বাঁচাবে Ctrl+Home শর্টকাটটি । আর ডকুমেন্টের শেষ পেজে যাওয়ার জন্য ব্যবহার করতে পারবেন Ctrl+End শর্টকাট। 

Ctrl+Backspace

ডকুমেন্টে লিখিত টেক্সটগুলোর কোনো তথ্য অপ্রয়োজনীয় মনে হলে প্রতি অক্ষর মুছে ফেলার বিপরীতে পুরো শব্দটি মুছে ফেলতে পারে সহজেই Ctrl+ Backspace শর্টকাট ব্যবহার করে।

Ctrl+Left/Right Arrow

ডকুমেন্টে টেক্সট সিলেক্ট অথবা ডিলিট করার জন্য Ctrl+Left Arrow শর্টকাটের মাধ্যমে বাম দিকে কার্সর সরানো যায় এবং Ctrl+Right Arrow দিয়ে ডান দিকে কার্সর সরানোর কাজ করা যায়। আর Ctrl+Shift চেপে Left/Right Arrow ব্যবহার করে শব্দ সিলেক্ট করা যায় নিমিষে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *