ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার জেনে নিন।

ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদানের ব্যবহার জেনে নিন।

ত্বকের যত্নে আমরা নানা ধরনের কেমিকেল দিয়ে তৈরীকৃত জিনিস ব্যবহার করে থাকি।কিন্তু এগুলো আমাদের ত্বকের অনেক ক্ষতিসাধন করে।আজকে ত্বকের যত্নের জন্য কিছু প্রাকৃতিক উপাদান নিয়ে আলোচনা করব।

ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান 

১.মধু : ত্বকের যত্নে মধুর ব্যবহার কয়েক যুগ আগে থেকে হয়ে আসছে । মধু খুবই শক্তিশালী একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ময়েশ্চারাইজার হিসেবে খুবই ভালো কাজ করে । মধু ত্বকের সূক্ষ্মরেখা কমাতে সাহায্য করে । ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে । ব্রনের দাগছোপ কমাতে সাহায্য করে ।

২.অ্যালোভেরা : অ্যালোভেরা জেল বা ঘৃতকুমারীর ভেষজ গুণ ছাড়াও রূপচর্চাতেও এর জুড়ি মেলা ভার ।  অ্যালোভেরা জেল যে শুধুমাত্র ত্বকের ইচিনেস কমায় বা জ্বালাপোড়া কমায় তা না, ব্রনের জেদি দাগ দূর করতে খুবই সাহায্য করে । মুখের বলিরেখা কমায় । অ্যালোভেরা জেল ত্বকে লাগালে ত্বকের লালচে ভাব কমে । ত্বক উজ্জ্বল করে । 

৩.কস্তুরী হলুদ : হলুদের ব্যবহার তো সবাই জানি, কস্তুরী হলুদের গুণাগুণ কি জানা আছে ?  সাধারণ হলুদের মত কস্তুরী হলুদ হলদে ছাপ ফেলে না ত্বকে, কিন্তু সাধারণ হলুদের থেকেও ১০ গুণ বেশি কার্যকরী কস্তুরী হলুদ । মুখের দাগ কমাতে খুবই সাহায্য করে এবং দ্রুতগতিতে । 

৪.বেসন :  রান্না ঘরে থাকা এই অতি সাধারণ উপাদান যে ত্বকের যত্নে কতটা কার্যকরী তা আপনি জানেন কি ? বেসন দিয়ে যেকোন ফেইসপ্যাক বানিয়ে ফেলা যায় সহজেই । বেসন মুখের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে । ব্রণের জেদি দাগ দূর করে । রোদে পোড়া ভাব দূর করে । 

৫.টক দই : ত্বকের যত্নে আর একটি কার্যকরী প্রাকৃতিক উপাদান হচ্ছে টকদই । টকদই ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায় । রোদে পোড়াভাব কমায় । ত্বক নরম করতে সাহায্য করে । ত্বকের হারিয়ে যাওয়া জেল্লা ফিরিয়ে আনে । 

৬.শসা : শসা ত্বক সুদিং করতে সাহায্য করে । ত্বকের ইচিনেচ কমায় । চোখের এরিয়ায় ডার্ক সার্কেল কমাতে শসার জুড়ি নেই ।

৭.চন্দন : চন্দন রূপচর্চায় আভিজাত্য এনে দেয় । সেই বহুকাল আগে থেকে চন্দনের ব্যবহার হয়ে আসছে । চন্দন ত্বকের দাগ কমায়, ত্বক উজ্জ্বল করে, ত্বক টানটান করতে সাহায্য করে ।

৮.অলিভ অয়েল : শুনতে অবাক লাগলেও অলিভ অয়েল খুবই উপকারী আমাদের ত্বকের জন্য । শুধু যে ত্বকে ময়েশ্চারাইজারের কাজ করে তা না, ত্বক উজ্জ্বল করে তোলে, ত্বকে নারিশমেন্ট দেয় । হোয়াইটহেডসের সমস্যা সমাধানে অলিভ অয়েলের জুড়ি নেই । সেই সাথে ত্বকের পোর মিনিমাইজ করতে সাহায্য করে । 

৯.টমেটো :সবজি হিসেবে ব্যবহৃত হলেও হয়ত অনেকেই জানেন না টমেটো ত্বকের যত্নেও সমান ভাবে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে । টমেটো ত্বকে জেল্লা এনে দেয় । ব্রণের দাগ দূর করে দ্রুত । হোয়াইটহেডস কমায় । ত্বক উজ্জ্বল করে ও মসৃণ করে । 

১০.মুলতানি মাটি : ত্বক থেকে ব্রণের দাগ দূর করতে মুলতানি মাটির প্যাক খুবই উপকারী । মুলতানি মাটি তৈলাক্ত ত্বকের জন্য খুবই ভালো । মুলতানি মাটি ত্বকের অতিরিক্ত তেল নিঃসরণ করে, ত্বক টান টান করে । ত্বকে ইনস্ট্যান্ট গ্লো আনে । 

মোটামুটি এগুলো ত্বকের যত্নে প্রাকৃতিক উপাদান। এগুলি খুবই সহজলভ্য, সবার ঘরেই থাকে । তাইলে অল্প সময়ে অবসরেও নিজের ত্বকের যত্ন নিতে পারবেন কোন ঝামেলা ছাড়াও । কিন্তু শুধু বাহ্যিক যত্নই সব নয়, সুস্থ সুন্দর ত্বকের জন্য প্রচুর পরিমানে পানি পান করুন । দিনে অন্তত ৮ থেকে ১০ গ্লাস পানি খান । সবুজ শাক সবজি খান । রোজ একটু হাঁটুন, হালকা কিছু ব্যায়াম করুন । ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *