National ID Card Correction Fess Deposit System । NID সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম ২০২৩

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি জমা দেওয়া এখন কোন ব্যাপারই না-মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবহার করেই জমা দেওয়া যায় – Nid সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম ২০২২

কোন মোবাইল ব্যাংকিং ইউজ করবো? ভোটার আইডি কার্ডসংশোধন ফি বিকাশ, রকেট, ওকে ওয়ালেট ও টি ক্যাশ-এর মাধ্যমে ঘরে বসেই পরিশোধ করা যায়। নির্ধারিত ফি পরিশোধের ৩০ মিনিট পর থেকে তথ্য সম্পাদন শুরু করা যাবে। আর সংশোধিত স্মার্ট আইডি কার্ড হাতে পেতে সর্বোচ্চ ২ মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

দ্বিতীয় বারের ক্ষেত্রে কি একই পরিমাণ অর্থ জমা দিতে হয়? না। ভোটার আইডি কার্ডসংশোধন ফি মূলত ২টি ক্ষেত্রে ধার্য হয়ে থাকে। স্মার্টকার্ড-এর সামনের ও পেছনের পৃষ্ঠে কিছু তথ্য প্রদর্শন করা থাকে যেগুলো নিবন্ধনের সময় নাগরিকরা ফরম-২-এর মাধ্যমে প্রদান করে থাকেন। এগুলোর মধ্যে সামনের পৃষ্ঠে বাংলা ও ইংরেজিতে জাতীয় পরিচয়পত্রধারীর নাম, বাংলায় পিতা ও মাতার নাম, ইংরেজিতে জন্ম তারিখ ও এনআইডি নাম্বার, স্বাক্ষর এবং পেছনে বাংলায় ঠিকানা, ইংরেজিতে রক্তের গ্রুপ ও জন্মস্থান অন্তর্ভুক্ত। এগুলোর মধ্যে যেকোনো তথ্য পরিবর্তন করতে হলে প্রথমবার আবেদনের সময় ২৩০ টাকা, দ্বিতীয়বার ৩৪৫ টাকা এবং তারপর থেকে প্রতিবার আবেদনের জন্য ৫৭৫ টাকা জমা দিতে হবে।

১১৫ টাকা ফি কখন দিতে হয়? নিবন্ধনের সময় নাগরিকরা সেই ফরম-২-এর মাধ্যমে কিছু তথ্য প্রদান করেন, যেগুলো এনআইডি কার্ডে প্রদর্শন করা থাকে না। যেমন- প্রার্থীর পেশা, পাসপোর্ট ও মোবাইল নাম্বার, শিক্ষাগত যোগ্যতা ইত্যাদি। এগুলোর সংশোধন ফি ১১৫ টাকা। ভোটার আইডি কার্ডসংশোধন ফি বিকাশ, রকেট, ওকে ওয়ালেট ও টি ক্যাশ-এর মাধ্যমে ঘরে বসেই পরিশোধ করা যায়। নির্ধারিত ফি পরিশোধের ৩০ মিনিট পর থেকে তথ্য সম্পাদন শুরু করা যাবে। আর সংশোধিত স্মার্ট আইডি কার্ড হাতে পেতে সর্বোচ্চ ২ মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

NID সংশোধন ফি কি অনলাইনে এনআইডি নম্বর ব্যবহার করে হিসাব করা যায়? হ্যাঁ যায়। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে গিয়ে services.nidw.gov.bd ক্লিক করলেই জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, আবেদনের ধরন, বিতরণের ধরন সিলেক্ট করতে হবে এবং ক্যাপচা পূরণ করে হিসাব করুন ক্লিক করলেই কত টাকা জমা দিতে হবে তা দেখাবে। আপনি অনলাইনের হিসাবটি করে নিবেন কারণ যদি দ্বিতীয় বা তৃতীয় বার সংশোধন করেন তবে ফি অধিক পরিমানে পরিশোধ করতে হবে তা এখানে দেখাবে।

রকেটের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন ফি পরিশোধ পদ্ধতি ? আপনার ১৭ বা ১০ ডিজিটের জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ড নম্বরটি ইংরেজিতে লিখুন। Details এ ক্লিক করে আবেদনের ধরণ (Application Type) জেনে নিন অথবা ধরণ অনুসারে একটি নম্বর বাছাই করুন। যেমন- NID Info Correction (তথ্য সংশোধন), Other Info Correction (অন্যান্য তথ্য সংশোধন), Both Info Correction (উভয় তথ্য সংশোধন), Duplicate Regular (পুনরায় ইস্যু সাধারণ), Duplicate Urgent (পুনরায় ইস্যু জরুরী), যদি আপনি জাতীয় পরিচয়পত্রের নাম, পিতা-মাতার নাম, স্বামী-স্ত্রীর নাম বয়স বা ঠিকানা পরিবর্তন করেন সেই ক্ষেত্রে আবেদনের ধরণ হবে (1) অর্থাৎ তথ্য সংশোধন। সুতরাং আপনি Application Type এ 1 Type করবেন।যদি রকেট একাউন্ট নম্বরটি আপনার নিজের হয়, তাহলে Self সিলেক্ট করুন। আর যদি অন্য কারে একাউন্ট থেকে বা অন্য কারো জন্য ফি পরিশোধ করেন, Other অপশন সিলেক্ট করে, যার আইডি সংশোধন করছেন তার মোবাইল নম্বরটি ইংরেজিতে লিখুন। এবার Validate বাটনে ক্লিক করুন এবং রকেট একাউন্টের পিন নম্বর দিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র ফি পরিশোধ করুন।

বিকাশ, রকেট বা সোনালী সেবার মাধ্যমে এনআইডি ফি জমা দেয়া যাবে / জাতীয় পরিচয়পত্র ফি জমা দিতে এখন চালান কপি লাগবে না

এখন বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত সকল সেবার ফি পরিশোধ করতে পারবেন। বিকাশ অ্যাপের ‘পে বিল’ অপশন থেকে ‘NID Service’ সেবাটি সিলেক্ট করে জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত ফি জমা দিতে পারবেন। এক্ষেত্রে আপনার এনআইডি বা জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বরের বিপরীতে ফি জমা হয়ে যাবে।

National ID Card Correction Fess Deposit System । Nid সংশোধন ফি জমা দেওয়ার নিয়ম ২০২২

Nid fee payment by bkash । এনআইডি কার্ড সংশোধন ফি বিকাশ করুন

জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের ক্ষেত্রে কি কি ডকুমেন্ট গ্রহনযোগ্য বলে বিবেচিত হয়?

  1. প্রার্থীর নাম অথবা জন্ম তারিখ সংশোধন করতে হলে প্রার্থীর  জন্ম নিবন্ধন সনদপত্র অথবা কমপক্ষে মাধ্যমিক বা সমমানের পরীক্ষার সনদপত্র প্রয়োজন পড়বে। শিক্ষাগত যোগ্যতা মাধ্যমিক বা সমমানের নিচে হলে এবং প্রার্থী সরকারি, স্বায়ত্বশাসিত, আধা-স্বায়ত্বশাসিত অথবা সংবিধিবদ্ধ কোনো সংস্থায় কর্মরত হলে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে চাকরির বই বা মান্থলি পেমেন্ট অর্ডার (এমপিও) বা ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোর্ট বা ট্রেড লাইসেন্স লাগবে।
  2. বিবাহিতদের ক্ষেত্রে স্ত্রী বা স্বামীর এনআইডি কার্ড এবং কাবিননামার সত্যায়িত কপি লাগবে। তবে বিবাহ সংক্রান্ত কোন কারণে নারীদের নামের পরিবর্তন করতে হলে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে কাবিননামা বা তালাকনামা বা স্বামীর মৃত্যু সনদ, ম্যাজিস্ট্রেট আদালত কর্তৃক হলফনামা বা বিবাহ বিচ্ছেদ ফরমানের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে।
  3. ধর্ম পরিবর্তন অথবা অন্য কোন কারণে পুরো নাম পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট কর্তৃক হলোফনামা, জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তির কপি, ওয়ারিশ সনদপত্র, ইউনিয়ন বা পৌর বা সিটি কর্পোরেশন থেকে প্রার্থীর নাম সংক্রান্ত প্রত্যয়নপত্র বা চাকরির বই বা এমপিও বা ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন হবে।
  4. পিতা বা মাতার নাম সংশোধনের সময়, যদি পিতা বা মাতার নাম উল্লেখ থাকে তবে প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমানের সনদপত্র, প্রার্থীর পিতা, মাতা, ভাই ও বোনের এনআইডির সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে।পিতা বা মাতার নামের পূর্বে ‘মৃত’ সংযোজন করতে হলে প্রযোজ্য ক্ষেত্রে পিতা বা মাতার মৃত্যু সনদের সত্যায়িত কপি, জীবিত থাকলে সেই সূত্রে সংশ্লিষ্ট এলাকার ইউপি (ইউনিয়ন পরিষদ)-এর চেয়ারম্যান বা পৌর মেয়র বা ওয়ার্ড কাউন্সিলরের প্রত্যয়নপত্র, পিতা বা মাতার এনআইডি কার্ডের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে।
  5. ঠিকানা সংশোধনের জন্য বাড়ির দলিল বা টেলিফোন, গ্যাস বা পানির বিল, বাড়ি ভাড়ার চুক্তিপত্র বা বাড়িভাড়ার রশিদের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে।
  6. রক্তের গ্রুপ সংশোধনের জন্য প্রয়োজন হবে ডাক্তারি সনদপত্র।
  7. প্রার্থীর সর্বশেষ শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদপত্রের সত্যায়িত কপি জমা দিতে হবে শিক্ষাগত যোগ্যতা সংশোধন করার জন্য। এ কাগজগুলো যারা সত্যায়িত করতে পারবেন তারা হলেন সংসদ সদস্য, স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, গেজেটেড সরকারি কর্মকর্তা এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান।

ভ্যাটসহ টাকা টাকা বিকাশ বা রকেট করতে হয়?

তথ্য সংশোধনের ধরণ অনুযায়ী জাতীয় পরিচয়পত্রের ফি বিভিন্ন হয়ে থাকে। নিচের সকল ফির সাথে ১৫% ভ্যাট অন্তর্ভুক্ত আছে। তাছাড়া পরবর্তীতে আপনার ২য় বা ৩য় বার আবেদনের সময় ফির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ডে ছাপা আছে এমন তথ্য যেমন, নিজ নাম/ পিতা/ মাতা/ স্বামী-স্ত্রীর নাম/ ঠিকানা/ রক্তের গ্রুপ সংশোধন করতে  ১ম বার- ২৩০ টাকা, ২য় বার- ৩৪৫ টাকা, ৩য় বার- ৫৭৫ টাকা।

অন্যান্য তথ্য সংশোধনের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ডে ছাপা হয়নি এমন তথ্য যেমন, শিক্ষাগত যোগ্যতা, পেশা, ধর্ম, পার্সপোর্ট ও ড্রাইভিং লাইসেন্স নম্বর, মোবাইল নম্বর সংশোধন। ফি ১১৫ টাকা।

admin

আলামিন মিয়া, একজন ব্লগার, ডিজিটাল মার্কেটার, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজার। ব্লগিংকরছি প্রায় ৭ বছর যাবৎ। বিভিন্ন অনলাইন সেবা হাতের কাছে পেতে নির্দেশনা ও পদ্ধতি গুলো ব্যাখ্যা করা হয় যা আপনি খুব সহজেই এই ওয়েবসাইট হতে পেতে পারেন। যদি অতিরিক্ত কোন তথ্য প্রয়োজন হয় বা পরামর্শ থাকে তবে মেইল করুন admin@tricksboss.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *