স্মার্টফোনের ব্যাটারির স্থায়িত্ব কিভাবে বাড়াবেন?

বর্তমান এ প্রযুক্তির কল্যানে এবং প্রয়োজন এর তাগিদে স্মর্ট ফোন আমাদের সকলের হাতে হাতে পৌঁছে গিয়েছে। আমারা দিনের অনেকটা সময়ই ব্যয় করি এই স্মার্ট ফোনকে কেন্দ্র করে। আর এই স্মার্ট ফোন এর চালিকা শক্তি হলো এর ব্যাটারি। কিন্তু আমাদের কিছু ভুলের জন্য ধীরে ধীরে ক্ষতি হচ্ছে ফোনের ব্যাটারির। সুতরাং আজকে আপনার ফোনের ব্যাটারির স্থায়িত্ব বৃদ্ধির হবে এমন কিছু পরামর্শ দেওয়া হবে এই আলোচনায়-

প্রতিবার ১০০% চার্জ করবেন না

আপনার স্মার্টফোনে প্রতিবার ১০০ ভাগ চার্জ না দিয়ে, ৯০-৯৫ ভাগ পর্যন্ত চার্জ দিবেন । তবে সপ্তাহে ১ বার শতভাগ চার্জ করা যেতে পারে। এই প্রক্রিয়ার সাহায্যে ‘ব্যাটারি রিক্যালিব্রেট’ হবে। সাধারণত আমাদের ফোনে লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারি থাকে। এই ব্যাটারিগুলো সবচেয়ে ভালো কাজ করে যখন এতে ৩০-৫০ ভাগ পর্যন্ত চার্জ থাকে।দীর্ঘসময় ফোন চার্জে রাখবেন না- সারাদিন ব্যস্ত থাকার কারণে অনেকেই স্মার্ট ফোনটিকে চার্জ দেওয়ার সময় পায় না। এর ফলে অনেকেই স্মার্ট ফোনটি রাতে চার্জে লাগিয়ে ঘুমিয়ে যান। এই কাজটি একেবারেই করা যাবে না। এতে করে ব্যাটারির ওপর বাড়তি চাপ পড়ে। অনেকসময় গরম হয়। আর ব্যটারি গরম হওয়া মানেই এর লাইফ টাইম কমে যাওয়া। তাই সারাদিন এ যখনই সময় পাবেন ফোন চার্জ করে নিবেন। ফোন চার্জে রেখে ঘুমিয়ে যাবেন না।

চার্জ করার জন্য ০% এর অপেক্ষা করবেন না

আমরা অনেকেই আছি মোবাইল ফোনের চার্জ ০% পারসেন্ট না হওয়া পর্যন্ত ফোন ব্যবহার করতেই থাকি কিন্তু তা করা মোটেও ঠিক না । ফোনের চার্জ একবারে শেষ হয়ে যাওয়ার পর চার্জে দিলে ফোনের ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। মোবাইলের ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার থেকে রক্ষা করতে অবশ্যই মোবাইল ফোনের চার্জ ২০% থাকা কালীন চার্জ দিন এবং ৯০-৯৫ % হয়ে গেলে চার্জ থেকে খুলে ফেলুন ।

নিজস্ব চার্জার ব্যবহার

অবশ্যই মোবাইল ফোন টি চার্জ করার সময় মোবাইলের সাথে যে চার্জার দেওয়া হয়ে থাকে ঐ চার্জার টি ব্যবহার করুন। ফোন কোম্পানি আপনার ফোনের ব্যাটারি কত পরিমাণ চার্জ কিভাবে নিবে সেসব নির্ধারিত করে রাখে চার্জারে মানে কত ভোল্ট এ চার্জ হবে। এই ক্যপাসিটি অন্য চার্জার এর সাথে মিলবে না। অন্যের চার্জার দিয়ে লাগাতার চার্জ করতে থাকলে আপনার ফোনে থাকা ব্যটারির উপর বাড়তি চাপ পড়বে। সুতরাং এই ধরনের কাজ করা থেকে বিরত থাকুনচার্জের সময় ব্যাক কভার খুলে রাখুন- অনেকের মোবাইল ফোন চার্জ দেওয়ার সময় ব্যাটারি গরম হয়ে যায় এজন্য চার্জ দেওয়ার সময় ফোন ব্যাক কভার লাগানো থাকলে তা খুলে চার্জ দিবেন এতে গরম কম হবে । আরো ভালো হয় যদি ফোন টি বন্ধ করে চার্জ দেন। চার্জের সময় ফোন কোন বন্ধ জায়গায় রাখবেন না এতে মোবাইল ফোনের ব্যাটারি থেকে যে প্রতিনিয়ত উত্তাপ সৃষ্টি হয় তা বের হতে না পেরে গরম হয়ে যায় ।

ফোন চার্জে দিয়ে ব্যবহার করনেন না

আমাদের অনেকের একটি খারাপ অভ্যাস আছে যে মোবাইল ফোন চার্জে দিয়ে ব্যবহার করি যা করা একদম ক্ষতিকর ব্যাটারি ও ফোনের উভয়ের জন্য । আমরা ফোনের প্রতি এতোটাই আসক্ত হয়ে গিয়েছে যে ফোন চার্জ হওয়া পর্যন্তও অপেক্ষা করতে পারি না। ফোন এর ব্যাটারি ভালো রাখতে হলে আমাদের এই অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে।

চার্জার পিন

মোবাইল ফোন চার্জে দেওয়ার সময় চার্জার পিনের সাথে বেশি জোরাজুরি করতে যাবেন না। এতে চার্জার পিন ভেঙ্গে যেতে পারে । আবার চার্জার পিন লাগানো অবস্থায় ফোন ব্যবহার করতে গিয়ে হুট করে যেন টান দিবেন না। ফাস্ট চার্জিং- আপনার মোবাইল ফোনে ফাস্ট চার্জিং ব্যবস্থা না থাকলে অন্য কারো টা দিয়ে ফাস্ট চার্জিং করতে যাবেন না এতে ফোন অনেক গরম হয়ে ব্যাটারি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।ফোন ঠান্ডা রাখুন-ফোন যতটা সম্ভব ঠান্ডা রাখার চেষ্টা করুন। আপনার ফোনটি যেখানে চার্জ দিচ্ছেন বা রাখছেন, সে জায়গা যেন অতিরিক্ত গরম না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখুন। ফোন আবার অতিরিক্ত ঠান্ডা জায়গায় রাখাও ঠিক নয়। খুব বেশি ঠান্ডা বা অতিরিক্ত গরম ব্যাটারির কার্যক্ষমতার ওপর প্রভাব ফেলে।

সস্তা চার্জার ব্যবহার না করা

অনেক সময় ফোনের জন্য নির্ধারিত চার্জারটি হারিয়ে বা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সেক্ষেত্রে অনেকেই বাজার থেকে সস্তা ও অখ্যাত ব্র্যান্ডের চার্জার কেনেন। এসব চার্জারে চার্জ দিলে ফোন অতিরিক্ত গরম হয়ে যায়। চার্জ হতেও সময় বেশি নেয়। আর অ্যাডাপ্টারে সমস্যা দেখা দিলে ফোন ও ব্যাটারি দুটোই নষ্ট হতে পারে। তাই সস্তা চার্জার ব্যবহার না করাই ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *