কোরআনের শরীফের কোন সূরা তিনটি জঘন্য গোনাহের কথা বলা আছে এবং গোনাহ তিনটি কি কি?

কোরআনের কোন সূরা যেখানে তিনটি জঘন্য গোনাহের কথা আছে

 

 

১।‌ সূরা আল-হুমাযাহ্‌

সূরা আল-হুমাযাহ্‌-এর অর্থ পরনিন্দা বা গীবত। মক্কায় অবতীর্ণ। আয়াত ০৯ (নয়)। কুরআনের ক্রমিক নং – ১০৪। কালানুক্রমিক/অবতীর্ণ নং – ৩২। সূরা আল হুমাযাহ। এক- পরনিন্দাকারী ও অর্থলিপ্সু ধনিক শ্রেণির দুর্ভোগ ও ধ্বংসের কথা (১-৩ আয়াত)। দুই- ঐসব লোকদের পরকালীন শাস্তির বর্ণনা (৪-৯ আয়াত)।সূরা আল- হুমাযাহ মহাগ্রন্থ আল কুরআনের ১০৪ তম সূরা। এই সূরাটির মক্কা অবতীর্ণ হয়েছে এবং এর আয়াত সংখ্যা ৯ টি।এ সূরাতে তিনটি জঘন্য গোনাহের কথা বলা হয়েছে। গোনাহ তিনটি হলো- গীবত,সামনাসামনি দোষারোপ করা,সমালোচনা ও মন্দ বলা এবং অর্থলিপ্সা।

 

২। গোনাহ তিনটি কি কি?

তিনটি জগন্য গোনাহে্‌ শাস্তি ও তার তীব্রতা বর্ণিত হয়েছে। গোনাহ্‌ তিনটি হচ্ছে হুমযা, লুমাযা ও জ্বামা’আ মাল প্রথমাক্ত শব্দদ্বয় কয়েকটি অর্থে ব্যবহৃত হয়। অধিকাংশ তফসীরকারীর মতে ,হুমযা-এর অর্থ গীবত অর্থাৎ, পশ্চাতে পরনিন্দা করা এবং লুমাযা-এর অর্থ সামনাসামনি দোষারোপ করা ও মন্দ বলা। এ দুটি কাজই জগন্য গোনাহ্‌। পশ্চাতে পরনিন্দার শাস্তির কথা কুরআন ও হাদীসে বর্ণিত হয়েছে।

 

৩। তিনটি জগন্য গোনাহে্‌ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাখা

 

(সূরা -আল হুমাযাহ)

 

[১০৪-১]

وَيلٌ لِكُلِّ هُمَزَةٍ لُمَزَةٍ

দুর্ভোগ প্রত্যেকের যে সামনে নিন্দাকারী ও পেছনে গীবতকারী।

[১০৪-২]

الَّذي جَمَعَ مالًا وَعَدَّدَهُ

যে সম্পদ জমা করে এবং বার বার গণনা করে।

[১০৪-৩]

يَحسَبُ أَنَّ مالَهُ أَخلَدَهُ

সে মনে করে তার সম্পদ তাকে চিরজীবি করবে।

[১০৪-৪]

كَلّا لَيُنبَذَنَّ فِي الحُطَمَةِ

কখনো নয়, অবশ্যই সে নিক্ষিপ্ত হবে হুতামা’য়।

[১০৪-৫]

وَما أَدراكَ مَا الحُطَمَةُ

আর কিসে তোমাকে জানাবে হুতামা কি?

[১০৪-৬]

نارُ اللَّهِ الموقَدَةُ

আল্লাহর প্রজ্জ্বলিত আগুন।

[১০৪-৭]

الَّتي تَطَّلِعُ عَلَى الأَفئِدَةِ

যা হৃৎপিন্ড পর্যন্ত পৌঁছে যাবে।

[১০৪-৮]

إِنَّها عَلَيهِم مُؤصَدَةٌ

নিশ্চয় তা তাদেরকে আবদ্ধ করে রাখবে।

[১০৪-৯]

في عَمَدٍ مُمَدَّدَةٍ

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *